Skip to content
Home » ব্র্যাক একাউন্ট খোলার নিয়ম

ব্র্যাক একাউন্ট খোলার নিয়ম

আপনি কি ব্রাক একাউন্ট খোলার নিয়ম জানতে চাচ্ছেন তাহলে আপনি সঠিক জায়গায় এসেছে এই ব্লগ পোস্টটিতে আমরা পূর্ণাঙ্গ রূপে শেয়ার করেছি কিভাবে ব্রাক ব্যাংকে অতি সহজে একাউন্ট খোলা যায় । আপনি যদি এই দেশে বসবাসকারী একজন বাংলাদেশী নাগরিক হন তাহলে আপনি অবশ্যই ব্র্যাক একাউন্ট খোলার প্রয়োজনীয়তা জেনে থাকবেন।

ব্রাক ব্যাংক একাউন্ট খোলার নিয়ম

এই আর্টিকেলে দুই ভাবে উল্লেখ করেছি কিভাবে ব্যাংক একাউন্ট খোলা যায়। আপনি চাইলে সরাসরি ব্যাংকে গিয়ে অথবা ঘরে বসেও ব্রাক ব্যাংক অনলাইন ব্যাংকিং এর মাধ্যমে বা ড্রাগ ব্যাংকের সফটওয়্যার এর মাধ্যমে একাউন্ট করে ফেলতে পারবেন। ব্রাক ব্যাংক স্টুডেন্ট একাউন্ট অথবা একটি সেভিংস একাউন্ট যেকোনো অ্যাকাউন্ট আপনি দুই ভাবেই খুলে ফেলতে পারবেন ঘর থেকে খুললে ঝামেলা ছাড়া সহজেই খুলতে পারবেন।
ব্যাংকে কিংবা ঘরে যেখান থেকেই একাউন্ট করেন না কেন আপনার কিছু ডকুমেন্টস দরকার হবে। আপনার সহজে বোধগম্য হওয়ার সুবিধার্থে আমরা নিচে ধাপে ধাপে জানিয়ে দিচ্ছি কি কি ডকুমেন্টস দরকার হয়।

ব্র্যাক একাউন্ট খুলতে যা যা লাগবে

অন্য সকল ব্যাংকের মতো ব্রাক ব্যাংকেও ওই একই ধরনের কাগজপত্র প্রয়োজন। আর এই কাগজগুলো ব্যাংকে যাওয়ার সময় আপনার সাথে করে ব্যাংকে নিয়ে যেতে হবে অ্যাকাউন্ট খোলার জন্য। নিম্নে আলোচনা করা হয়েছে কি কি ডকুমেন্টস সাথে করে নিয়ে যাবেন ব্রাক ব্যাংকের অফিসে:
  • আপনার ছবি সম্বলিত ভোটার আইডি যেমন ভোটার আইডি কার্ড বা পাসপোর্ট।
  • আপনার দুই কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি।
  • নমিনির জাতীয় পরিচয় পত্রের ফটোকপি ও দুই কপি সত্যায়িত করা ছবি।
  • একজন ব্যাংক ইনট্রুডিউসার লাগবে।
বিশেষ দ্রষ্টব্য: ইন্ট্রোডিউসার হল এমন একজন ব্যক্তি যার আপনি যে ব্যাংকে একাউন্ট খুলতে গিয়েছেন অর্থাৎ ব্রাক ব্যাংকে একাউন্ট খুলতে গিয়েছেন আপনার পরিচিত এমন এক ব্যক্তি সাথে নিয়ে যেতে হবে যে ব্যক্তির ব্র্যাক ব্যাংকেই একাউন্ট খোলা রয়েছে। *সর্বনিম্ন ৫০০ টাকার ডিপোজিট করতে হবে।

ব্রাক ব্যাংক একাউন্ট খোলার নিয়ম

উপরোক্ত ডকুমেন্টস গুলো যদি আপনার সংগ্রহ করা হয়ে যায় তবে আপনি আপনার আশেপাশের ব্র্যাক ব্যাংকের একটি ব্রাঞ্চে চলে যান। উক্ত ব্রাঞ্চে গিয়ে আপনি আপনার একাউন্ট খোলার কথায় নির্দ্বিধায় বলুন। ব্যাংকের কর্মরত অফিসার আপনাকে একটি অ্যাকাউন্ট খোলার ফর্ম দিবে। যা আপনার কাছে থাকা ডকুমেন্টস গুলোর সাথে তথ্য মিল রেখে ওই ফর্মটি পূরণ করতে হবে। আপনি যদি পূরণ করতে সংকোচ বোধ করেন তবে কর্মরত যে কোন ব্যক্তিকে ফর্মটি দিবেন তারাই পূরণ করে দেবে।
বিশেষ দ্রষ্টব্য: আপনি যদি একাউন্টটি যৌথ অ্যাকাউন্ট হিসেবে খুলতে চান তবে এই পোস্টের নিয়মের থেকে একটু ব্যতিক্রম শর্ত নিয়ে একাউন্ট করতে হবে তো যৌথ একাউন্ট সম্পর্কে জানতে আমাদের ওয়েবসাইটে দেয়া “যৌথ ব্যাংক একাউন্ট খোলার নিয়ম” শীর্ষ পোস্টটি দেখে আসতে পারেন। এবারে দ্বিতীয় পদ্ধতিটি সম্পর্কে জানাতে যাচ্ছি।

অনলাইনে ব্র্যাক একাউন্ট খুলতে যা যা লাগবে

  • একটি স্মার্ট ফোন বা কম্পিউটার
  • আপনার ছবি সম্বলিত পরিচয় পত্র যেমন ভোটার আইডি কার্ড বা পাসপোর্ট।
  • আপনার তহবিলের উৎসের প্রমাণ।
নমিনির এন আই ডি কপি ও দুই কপি ছবি যা মোবাইল স্ক্যান করা থাকতে হবে ছবি প্রয়োজন নাও হতে পারে। যেকোনো একটি ডকুমেন্টস দিয়ে একটি অ্যাকাউন্টের জন্য আবেদন করতে পারেন টিন সার্টিফিকেট/ পাসপোর্ট/ড্রাইভিং লাইসেন্স/ইউটিলিটি বিল/জন্ম সনদপত্র ।

অনলাইনে ব্রাক ব্যাংক একাউন্ট খোলার নিয়ম

অনলাইনে ব্যাংক একাউন্ট খোলার জন্য প্রথমে ব্র্যাক ব্যাংকের ওয়েবসাইট ভিজিট করুন। নিচে দেখানো সাইটে নিয়ে আসবে দিনটি এখান থেকে এপ্লাই নাও দিয়ে আপনার অ্যাকাউন্ট খোলার পদ্ধতি শুরু করুন।

কাস্টমার কেয়ার হেল্পলাইন

আপনার যদি এই ব্রাক একাউন্ট খোলার নিয়ম দেখানো হয়েছে তার বাইরে আরও কিছু জানার থাকে তবে আপনি তাদের কাস্টমার কেয়ারে যোগাযোগ করতে পারেন ব্র্যাক ব্যাংকের কাস্টমার কেয়ার এর কন্টাক ইনফো নিচে দেওয়া হল
ফোন নাম্বার 16221
ব্র্যাক ব্যাংকের ইমেইল ঠিকানা: [email protected]
পরিশেষে, আমাদের এই আর্টিকেলে ব্র্যাক ব্যাংকের একাউন্ট খোলার যাবতীয় তথ্য শেয়ার করা রয়েছে মনোযোগ দিয়ে যদি আপনি পুরো পোস্টটি কয়েকবার পড়ে থাকেন তাহলে অবশ্যই ব্রাক ব্যাংকে একাউন্ট করার ক্ষেত্রে যে নিয়ম রয়েছে তা অতি সহজেই আপনি বুঝতে পারবেন এবং অনায়াসে এই ব্র্যাক ব্যাংকের অ্যাকাউন্ট করতে পারবেন। ব্র্যাক ব্যাংকের অ্যাকাউন্ট করা সংক্রান্ত যাবতীয় তথ্য পেতে আমাদের কমেন্ট করতে পারেন অথবা ব্রাক ব্যাংকের হট লাইন কিংবা ইমেইলে যোগাযোগ করতে পারেন। ধন্যবাদ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *